Monday, September 13, 2021

Petroleum (পেট্রোলিয়াম): গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

 


৯৪.১। Petroleum (পেট্রোলিয়াম)।

♣ সমনামঃ খনিজ তেল, রক অয়েল, কোল অয়েল।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, টিউবারকুলার, সিফিলিটিক।
♣ সাইডঃ বামপাশ,
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ জৈব উত্তাপের অভাব, শ্লেষ্মাক্ষরণ বর্ধিত, যাদেন চামড়া ও চুল পাতলা, খিটখিটে ও ঝগড়াটে একটুতেই সহজে অপমানিত বোধ করে, সব কিছুতেই রেগে যায় এমন লোকদের অসুখে উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ মাথার পিছন দিকে, চামড়ার ভাঁজ, মাথার চামড়া, মুখ, জননেন্দ্রিয়ের চামড়া, মিউকাস মেমব্রেন, পাকস্হলী, উদর।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ ঘাম বের করা ও বসাময় গ্রন্হিগুলোর ওপর এর কাজ। রোগগুলো শীতকালে বাড়ে। পেট্রোলজাতীয় ধোয়া থেকে সৃষ্ট উপসর্গ: গাড়ি বা জাহাজ চড়ে বেড়াবার ফলে দীর্ঘস্হায়ী পাকাশয়িক ও ফুসফুসের ব্যাধি: পুরাতন উদরাময়। ভয়, বিরক্তি প্রভৃতি মানসিক অবস্হায় পরবর্তী দীর্ঘস্হায়ী রোগ।
♣ সারসংক্ষেপঃ শ্লেষ্মাক্ষরণ বর্ধিত, যাদের চামড়া ও চুল পাতলা, খিটখিটে ও ঝগড়াটে (নাক্স-ভ) একটুতেই সহজে অপমানিত বোধ করে। সন্ধিসমূহের পটপট (কড়মড়) শব্দ। ভারবোধ : বাহ্যিকভাবে ও অভ্যন্তরীণভাবে। প্রাতে, স্হলযান ও জলযান চড়লে, শীতকালে, বাঁধা কপিতে, স্পর্শে, শারীরিক ও মানসিক পরিশ্রমে বাড়ে। গরম ঘরে, গ্রীষ্মকালে, আহারের পর ও সামনের দিকে নত হলে কমে। মনের বিশৃঙ্খল অবস্হা, ক্রোধ, ঝগড়াটে, ভ্রান্ত বিশ্বাস, অস্হিরতা, সময়: অতি ধীরে ধীরে যায়, ভীরুতা। খোলা বাতাসে বিতৃষ্ণা ও পায়ে দুর্গন্ধযুক্ত ঘাম। হাতের তালুতে গভীর ফাটা। ঘুম ঘুম ভাবের সাথে বা নিদ্রাতুর অবস্হার সাথে হাঁচি হয়। মাথা নিচু করে শুলে বমি বমি ভাবসহ মাথা ঘোরায়।
♣ অদ্ভূদ লক্ষণঃ সন্ধিসমূহের পটপট (কড়মড়) শব্দ, (এই লক্ষণটি কষ্টিকামেও আছে)। পুরাতন বাতে বিশেষতঃ এই লক্ষণটি বর্তমান থাকলে উভয় ঔষধ উপকারী।
♣ অনুভূতিঃ অন্তঃসত্ত্বাবস্হায় পাকস্হলী খালিবোধ।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ ১) শরীর সোজা রাখলে মলদ্বারে সূ্ঁচিবেঁধামতো ব্যথা হয়। ২) হাতের তালুতে গভীর ফাটা।
< বৃদ্ধিঃ প্রাতে, আহারকালে ও পরে, বাঁধা কপিতে, ট্রেনের কামড়ায় বা গাড়িতে, স্হলযান, পোশাকের চাপে, শয্যাতাপে, ঝড়-বৃষ্টির আগে ও সময়ে, শারীরিক ও মানসিক পরিশ্রমে, আলো ও শব্দে।
> হ্রাসঃ গরম ঘরে, শুষ্ক আবহাওয়ায়, খোলা বাতাসে, গরম বাতাসে , মাথা উঁচু রেখে শয়নে (মাথাঘোরা), পূর্ণিমায়, আহারের পর, গ্রীষ্মকালে (চর্মপীড়া), রাতে (আমাশয় ও উদরাময়), ঠাণ্ডা লাগালে, দ্রুত প্রকোপের পর, সামনের দিকে নত হলে (উদরশূল)।
♣ কারণঃ বিরক্তি, গাড়ি বা নৌকা চড়লে, শোক, নাইট্রিক-অ্যাসিড, বাঁধাকপি, চর্মরোগ বসে গেলে, মচকে গেলে।
♣ ইচ্ছাঃ মদ, মিষ্টি।
♣ অনিচ্ছাঃ খোলা বাতাস, চর্বি এবং গরম খাবার, মাংস।
♣ শত্রুভাবাপন্নঃ সিপিয়া।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ অ্যাকোন, ক্যাম্ফ, ককিউ, নাক্স-ভ, ফস।
♣ প্রয়োগঃ যাবতীয় অঙ্গারজাত পদার্থই মাথার পেছন দিক আক্রমণ করে।— ডা. জে. টি. কেন্ট।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা পেট্রোলিয়াম প্রয়োগ করতে পারবো।

#গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ (ক্যান্ট রেপার্টরী অনুযায়ী)
১) ক্রোধ (Anger) ঃ-খিটখিটে ভাব- অ্যাকোন, অ্যানাকা,আর্স, অরাম, ব্রায়ো, ক্যামো, ইগ্নে ক্যালি-কা,ক্যালি-সাল, লাইকো, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যামি,নাক্স-ভ, পেট্রো,সিপি,স্ট্যাফি, সালফ।
২) মনের বিশৃঙ্খল অবস্হা (Confusion)/ বিহ্বল (Bewildered)/ মনের ছায়াচ্ছন্ন অবস্হা (Cloudiness)/ চিত্ত বিক্ষেপ (Distarction)/ মাতলামি (Intoxication)- A= বেল, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, কার্বো-ভে, ককুল, ইউপি, গ্লোনে, ল্যাকে, মার্ক, ন্যাট্র-মি, নাক্স-ম, নাক্স-ভ, ওনোস, ওপি, পেট্রো, রাস, সিপি, সাইলি, স্টিকনি।
৩) ভ্রান্ত বিশ্বাস( Delusions) : A- আর্জ-নাই, বেল, ক্যানা-ই, ককুল, হায়োস, ইগ্নে, ল্যাকে, পেট্রো, ফস-এসিড, স্যাবাডি, স্ট্র্যামো, সালফ।
৪) উত্তেজনাপ্রবণতা (Irritability) – A= অ্যাকোন, অ্যালু, অ্যান্টি-ক্রু, অ্যাপিস, অরাম, বেল, বোভি, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, কার্বো-সাল, কস্টি, ক্যামো, গ্র্যাফ, হিপার, ক্যালি-কা, ক্যালি-আই, ক্যালি-সাল, লিলি-টি, লাইকো, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, পেট্রো, ফস-অ্যাসি, ফস, প্ল্যাট, পালস, র্যানান-বা, রাস, সিপি, সাইলি, স্ট্যাফি, স্ট্রিকনি, সালফ, সাল-অ্যাসি, থুজা, ভিরেট-ভি, জিঙ্ক।
৫) কলহপ্রিয় (Quarrelsome) – A= অরাম, ইগ্নে, নাক্স-ভ, পেট্রো, সালফ, ট্যারেন্টু।
৬) প্রাতে (Morning) বাড়ে- A= অ্যাগারি, অ্যামন-মি, আর্জ-মে, আর্স-আই, অরাম, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফ্লু, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সাল, কার্বো-ভে, ক্যামো, চেলিডো, সিনা, ক্রোকা, ক্যালি-বাই, ক্যালি-নাই, ল্যাকে, ন্যাট-আর্স, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ওনোস, পেট্রো, ফস-অ্যাসি, ফস, পালস, রডো, রাস, রোমেক্স, সিপি, স্পাইজে, স্কুই, সালফ, ভ্যালের ।
৭) খোলা বাতাসে (Open air) বিতৃষ্ণা – A= অ্যামন-কা, ব্যাপটি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, ক্যামো, ককুল, কফি, ইগ্নে, ক্যালি-কা, ন্যাট্র-মি, নাক্স-ভ, পেট্রো, রুমেক্স, সাইলি, সালফ।
৮) আক্ষেপ: ধনুষ্টংকারবৎ আড়ষ্টতা- A= সাইকু, হাইপেরি, নাক্স-ভ, পেট্রো, প্ল্যাটি, সিপি।
৯) খাদ্য: বাঁধা কপিতে বাড়ে- A= ব্রায়ো, লাইকো, পেট্রো।
১০) ভারবোধ: অভ্যন্তরীণভাবে- A= অ্যাকোন, অ্যালো, বিসমা, ক্যাল্ক, চেলিডো, জেলস, ন্যাট্র-মি, নাক্স-ভ, পেট্রো, ফস, পালস, রাস, সিপি, সাইলি, স্ট্যানা, সালফ।
১১) শ্লেষ্মাক্ষরণ বর্ধিত (Mucous secretion increased) – A=অ্যালি-স্যা,ক্যাল্ক, ডালকা, হাইড্রা, আই, ক্যালি-বাই, ল্যাকে, লাইকো, মার্ক,নাক্স-ভ, পেট্রো, ফস, পালস, সালফ, ট্যাবে।
১২.১) ব্যথা: দংশনকর- কার্বো-ভে, নাক্স-ফস, পেট্রো-সেলি, র্যানান-স্ক্লে, সালফ।
১২.২) ব্যথা: কেটে ফেলার মতো বাহ্যিকভাবে- A= বেল, ক্যাল্ক, কোনি, ড্রসে, ন্যাট্র-কা, পেট্রো।
১২.৩) ব্যথা: অভ্যন্তরীণভাবে লাফালো মতো ব্যথা- A= অ্যাকোন, অ্যাগারি, অ্যালু, অ্যাম্ব্রা, বেল, ব্রায়ো, চায়না, ইগ্নে, ক্যালি-কা, নাই-অ্যাসি, পেট্রো, ফস-অ্যাসি, পালস, সাইলি, সালফ, থুজা।
১৩) ট্রেনের কামড়ায় বা গাড়িতে বাড়ে- A= ককুল, পেট্রো, প্ল্যাটি, সিপি।

0 Comments: