১২টি বায়োকেমিক ঔষধের সংক্ষিপ্ত পরিচয়

Recents in Beach

যে কোন জীব-জন্তু দংশনের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা

Random Posts

Technology

"ব্রেকিং নিউজ" চোখ উঠা
Welcome To BD HomeoPathic

কিডনীর পাথর এবং পিত্তথলির পাথর এর হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা

 



কিডনীর পাথর (Renal Calculi) এবং পিত্তথলির পাথর (cholelithiasis, biliary calculus) দুটোই বিনা অপারেশনে কেবল হােমিও ঔষধের সাহায্যেই ভ্যানিশ করা যায়। এজন্য হােমিওপ্যাথিক বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের অধীনে চিকিৎসা নেওয়া উচিত। ইহার চিকিৎসা প্রণালী বেশ জটিল বিধায় এই চটি বইয়ে তাহা আলােচনা করা সম্ভব নয়। তবে


সংক্ষেপে কয়েকটি ঔষধের ব্যবহার উল্লেখ করা হলাে। সাধারণত একটি ঔষধের ওপর ভরসা না করে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে কয়েকটি ঔষধ খাওয়া বুদ্ধিমানের কাজ হবে। ঔষধের বিস্তারিত লক্ষণ জানতে বােরিকের মেটেরিয়া মেডিকা পড়ে নিতে পারেন


Urtica Urens : এটি কিডনীর পাথরের একটি শ্রেষ্ট ঔষধ। নিয়মিত খেলে পাথর ছোট হতে থাকে এবং প্রস্রাবের সাথে অটোমেটিকভাবে বেরিয়ে যায়। বিশেষত যাদের বাতের বা জয়েন্টে ব্যথার সমস্যা আছে, তাদের ক্ষেত্রে এটি বেশী কাজ করে।


Thlaspi Bursa Pastoris : এটি কিডনীর পাথরের একটি উৎকৃষ্ট ঔষধ। নিয়মিত খেলে পাথর ছােট হতে থাকে এবং প্রস্রাবের সাথে অটোমেটিকভাবে বেরিয়ে যায়।


Chimaphila Umbellata : এই ঔষধটি কিডনী বামূত্রথলির পাথরের চিকিৎসায় ব্যবহার করতে পারেন। মূত্র পাথরজনিত ব্যথার চিকিৎসাতেও এটি ব্যবহার করতে পারেন।


Sarsaparilla, Lycopodium aaR Benzoic Acid ঔষধ তিনটি মূত্র পাথরিতে ব্যবহার করতে পারেন যদি প্রস্রাব করার পূর্বে রােগী (ব্যথা-জ্বালাপােড়ার কারণে) চীৎকার করে থাকে। Sarsaparlla: প্রস্রাব বের হওয়া শেষ হলে ভীষণ ব্যথা শুরু হয়, বসে প্রস্রাব করলে ফোটা ফোটা করে বেরােয় কিন্তু দাড়িয়ে প্রস্রাব করলে ভালােভাবে প্রস্রাব বের হয় ইত্যাদি লক্ষণে সার্সপেরিলা খেতে পারেন।


silicea : সাইলিশিয়া ঔষধটি কিডনী বা মূত্রথলির পাথরে ব্যবহার করতে পারেন বিশেষত যাদের বাতের সমস্যা আছে।


Solidago Virgaurea; ফসফেট বা ক্যালসিয়াম ফসফেট জাতীয় মূত্র পাথরে ইহা ব্যবহৃত হয়ে থাকে।


Lycopodium : প্রস্রাবের সাথে যদি ইটের গুড়ার মতাে পদার্থ যায়, তবে লাইকোপােডিয়াম খেতে হবে। এই ঔষধের অন্যান্য লক্ষণ হলাে পেটে প্রচুর গ্যাস হওয়া, বিকেল ৪টা থেকে ৮টার সময় রােগের কষ্ট বেড়ে যাওয়া ইত্যাদি।


ocimum Canum : কিডনীর পাথর দূর করতে এবং প্রচণ্ড পেটব্যথা, বমির জন্য অসিমাম ক্যানাম একটি সেরা ঔষধ। কিডনীতে পাথরজনিত পেট ব্যথার চোটে রােগী একেবারে বাঁকা হয়ে যায় এবং সাংঘাতিকভাবে বমি করতে


Berberis Vulgaris : পিত্তথলির পাথর এবং পাথরের কারণে হওয়া ব্যথা নিরাময়ে বার্বেরিস একটি এক নম্বর ঔষধ। এই ঔষধের লক্ষণ হলাে ব্যথা পিত্তথলি থেকে নাভীর দিকে অথবা বাম কাধের দিকে যেতে থাকে, তলপেটে জ্বালাপােড়া করা, পেটের ভেতরে বুদ্বযুদ্ব উঠতেছে এমন মনে হওয়া ইত্যাদি।


Ipecac: পিত্ত পাথর বা গল ব্লাডারের পাথরের ব্যথা দূর করতে ইপিকাক একটি শ্রেষ্ট ঔষধ (যদি বমিবমি ভাব থাকে)।

Share This

0 Response to "কিডনীর পাথর এবং পিত্তথলির পাথর এর হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা "

Post a Comment

Popular Posts