১২টি বায়োকেমিক ঔষধের সংক্ষিপ্ত পরিচয়

Recents in Beach

যে কোন জীব-জন্তু দংশনের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা

Random Posts

Technology

"ব্রেকিং নিউজ" চোখ উঠা
Welcome To BD HomeoPathic

শিশুর অতিরিক্ত কান্নার কারণগুলো জেনে নিন - Crying of kids



শিশুদের কান্নার চাইতে অধিকতর হৃদয়বিদারক কোন বিষয় আছে বলে অমাির জানা নাই। এমনকি মহানবী (দঃ) কখনও মসজিদে শিশুদের কান্না শােনলে নামায পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত করে ফেলতেন। কেননা তিনি মনে করতেন, এক্ষেত্রে নামায দীর্ঘ করলে কান্নারত শিশুর পিতা-মাতার মানসিক প্রশান্তি নষ্ট হবে। অসহায় এবং বাকশক্তিহীন এই শিশুরা তাদের দুঃখ-কষ্ট-অসুবিধার কথা কান্নার মাধ্যমে জানাতে চেষ্টা করে কান্নাই তাদের ভাষা।


সে যাক, বাহ্যত কোন কারণ ছাড়াই যদি শিশুরা কান্নাকাটি করে তবে আপনি নিশ্চিত থাকতে পারেন যে, তার পেটব্যথা হচ্ছে। ক্যালশিয়াম (দুধ) জাতীয় খাবার পেটে গ্যাস বা এসিডের উৎপাদন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে থাকে। শিশুরা যেহেতু দুধ বেশি বেশি খায় এবং দুধে যেহেতু প্রচুর ক্যালশিয়াম আছে : কাজেই ধরে নিতে পারেন শিশুদের পেটে এসিডিটি বা গ্যাসের সমস্যা থাকবেই। শিশুরা দিনরাতে যে-কোন সময়ে অকারণে কান্নাকাটি করলে বা খুব মেজাজ দেখালে

Nux Vomica দুয়েকটি বড়ি খাইয়ে দিন : সাথে সাথে কান্নাকাটি বন্ধ হয়ে যাবে। যদি কান্নাকাটি বন্ধ করে আপনার বাচ্চা মুহূর্তের মধ্যে ঘুমিয়ে পড়ে তবে ভয় পাবেন না। কারণ নাক্স ভমিকা আসলে ঘুমের জন্যও একটি ভালাে ঔষধ। সাধারণত শিশুর মেজাজ করা না হলে নাক্সে কাজ হয় না; কেননা নাক্স হলাে প্রধানতঃ বদমেজাজি লােকদের ঔষধ।


এক্ষেত্রে Colocynthis (যদি পেটে চাপ দিলে ব্যথা কমে) এবং Dioscorea (যদি পেটে চাপ দিলে ব্যথা বাড়ে) ঔষধ দুটির যে-কোনটি কিছুক্ষণ পরপর খাওয়াতে থাকুন। হঁ্যা, শিশু যদি খুবই ছােট হয় যেমন দুয়েক দিন থেকে দু'য়েক মাস বয়স, তাদেরকে ঔষধ না খাইয়ে বরং তাদের মাকে খাওয়ানােই যথেষ্ট (যদি তারা বুকের দুধ খায়)। প্রয়ােজনে। পানিতে গুলিয়ে খাওয়াতে পারেন।


যে-সব শিশুরা সারাদিন ভালাে থাকে কিন্তু রাতে খুব কান্নাকাটি করে তাদেরকে Jalapa নামক ঔষধটি কয়েকবার খাওয়ান।



পক্ষান্তরে যে-সব শিশুরা সারাদিন কান্নাকাটি করে কিন্তু রাতে চুপচাপ থাকে তাদেরকে Lycopodium নামক ঔষধটি কয়েকবার খাওয়ান।


শিশুদের কান্নাকাটির আরেকটি কারণ থাকতে পারে পায়খানার রাস্তায় সুতাকৃমির উৎপাত। এজন্য পায়খানার রাস্তা যতটা সম্ভব ফঁাক করে দেখতে পারেন সুতাকৃমি দেখা যায় কিনা অথবা পায়খানা করে সময় খেয়াল রাখবেন পায়খানার সাথে কোন ধরনের কৃমি যায় কিনা। কৃমি পাওয়া গেলে Teucrium নামক ঔষধ দুটির যে-কোনটি রােজ দুইবেলা করে তিনদিন খাওয়ান।


অনেক শিশু ঘুমের ভেতরে গােঙাতে থাকে এবং চীৎকার করতে থাকে, এদেরকে calcarea Carbonica নামক ঔষধটি (শক্তি ২০০) এক মাত্রা খাওয়ান। শিশু একটু বড় হলে এবং স্বাস্থ্য ভালাে থাকলে ১০০০ (LM) অথবা ১০,০০০ (10M) শক্তিতে একমাত্রা খাওয়াতে পারেন।


শিশুদের কান্নাকাটি এবং বদমেজাজের একটি বড় কারণ হলাে টিকা (Vaccine) নেওয়া। সাধারণত বিসিজি, ডিপিটি, এটিএস, হাম, পােলিও, হেপাটাইটিস ইত্যাদি টীকা নেওয়ার কারণে শিশুদের কান্নাকাটি করার রােগ হয়। তারা দিন্তেরাতে, কারণে-অকারণে কাদতে থাকে, কাদতে কাদতে বাড়ির সবার ঘুম হারাম করে ফেলে। এজন্য Thuja Occidentalis নামক ঔষধটি সপ্তায় এক মাত্রা করে ছয় সপ্তাহ খাওয়ান। থুজাতে পুরােপুরি না সারলে বিকল্প হিসেবে Silicea, Vaccininum, Sulphur ইত্যাদি নামক ঔষধগুলােও খাওয়াতে পারেন।

Share This

0 Response to " শিশুর অতিরিক্ত কান্নার কারণগুলো জেনে নিন - Crying of kids"

Post a Comment

Popular Posts