Thursday, April 1, 2021

কত শক্তির ঔষধ খাওয়া উচিত?

 


হােমিওপ্যাথিক ঔষধের শক্তিগুলাে হলাে ৩, ৬, ১২, ৩০, ২০০, ১০০০ (বা 1M), ১০০০০ (বা 10M), ৫০০০০ (বা 50M), ১০০,০০০ (বা CM) ইত্যাদি। সবচেয়ে নিম্নশক্তি হলাে মাদার টিংচার বা কিউ (Q) এবং ইহার শক্তিকে ধরা হয় শূণ্য (zero)। তাদের মধ্যে ৩, ৬, ১২, ৩০ কে বলা হয় নিম্নশক্তি আর ২০০ শক্তিকে বলা হয় মধ্য শক্তি। পক্ষান্তরে ১০০০, ১০০০০, ৫০০০০ এবং ১০০০০০ কে ধরা হয় উচ্চ শক্তি হিসাবে। নতুন রােগ বা ইমারজেন্সী রােগের ক্ষেত্রে নিম্নশক্তি এবং মধ্যশক্তির ঔষধ সবচেয়ে ভালাে কাজ করে। পক্ষান্তরে উচ্চ শক্তির ঔষধ প্রয়ােগ করতে হয় অনেক দিনের পুরনো রােগে অর্থাৎ ক্রনিক ডিজিজে। হােমিওপ্যাথির আবিষ্কারক ডাঃ স্যামুয়েল হ্যানিম্যানের মতে, ৩০ শক্তি হলাে স্ট্যান্ডার্ড শক্তি। হঁ্যা, ঔষধের প্রধান প্রধান লক্ষণসমূহের অনেকগুলাে যদি রোগীর মধ্যে নিশ্চিত পাওয়া যায়, তবে এক হাজার (IM) বা দশ হাজার (1OM) শক্তির ঔষধও খেতে পারেন। সাধারণত যে কোন রােগে নিম্ন শক্তির ঔষধ খেলে কয়েক মাত্রা খাওয়া লাগতে পারে কিন্তু উচ্চ শক্তির ঔষধ খেলে এক মাত্রাই যথেষ্ঠ।

কিন্তু উচ্চ শক্তির ঔষধ অপ্রয়োজনে ঘনঘন খেলে মারাত্মক বিপদ হতে পারে। বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া উচ্চ শক্তির ঔষধ খাওয়া উচিত নয়। কেননা সেক্ষেত্রে ঔষধের নির্বাচন ভুল হলে বিরাট ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। একই শক্তির ঔষধ সাধারণত একবারের বেশী খাওয়া উচিত নয়। অনেক সময় দ্বিতীয়বার এবং তৃতীয়বার খেলেও উপকার হয়। কিন্তু ইহার পর আর ঐ শক্তির ঔষধে তেমন কোন উপকার হয় না। হ্যানিম্যানের নির্দেশ হলাে, প্রতিবার ঔষধের শক্তি বৃদ্ধি করে খেতে হবে। আপনার কাছে যদি একাধিক শক্তির ঔষধ না থাকে, তবে একমাত্রা (এক ফোটা বা ৪/৫ টি বড়ি) ঔষধকে আধা বােতল পানিতে মিশিয়ে প্রতিবার খাওয়ার পূর্বে জোরে দশবার ঝুঁকি দিয়ে ঔষধের শক্তি বাড়িয়ে খান। (সাধারণত হাফ লিটার বা তার চাইতেও ছােট বোতল ব্যবহার করা উচিত। সাধারণত একই বােতল একবারের বেশী ব্যবহার করা উচিত নয়। তবে অন্য কোন বােতল না থাকলে সেটিকে অবশ্যই সাবান দিয়ে এবং গরম পানি দিয়ে ভালাে করে অনেকবার ধুয়ে নেওয়া উচিত।)

0 Comments: